1. info@www.skytvnews24.com : Sky TV News 24 :
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:১৫ অপরাহ্ন

অবশেষে বাতিল হলো ভোলার জজ কোর্টের সেই বিতর্কিত নিয়োগ

প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৩
  • ১১৮ বার পড়া হয়েছে

ডেস্ক রিপোর্টঃ ভোলা জেলা জজ আদালতের কর্মচারীদের নিয়োগ বাতিল করে রায় দিয়েছে মহামান্য হাইকোর্ট। এই বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ (Absolute) ঘোষনা করে মাননীয় বিচারপতি জাফর আহমেদ ও মাননীয় বিচারপতি মো: আক্তারুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ রায় দেন। ৪/৪/২০১৪ খ্রি তারিখে অফিস আদেশ নং যথাক্রমে ৬০, ৬১, ৬২ ও ৬৩ এর মাধ্যমে নিয়োগকৃত ১৪ জন ও ১৯/০৭/২০২১ তারিখে ১২ জনের নিয়োগ বাতিল ঘোষণা করা হয়।

একই সাথে সুপ্রিম কোর্টের সার্কুলার নং ০৮/২০১৫ তারিখ ০৭/০৬/২০১৫ অনুসারে ফ্রেশ নিয়োগ কার্যক্রম করার নির্দেশনা প্রদান করেন। উক্ত নিয়োগ কার্যক্রমে বাতিলকৃতদের আবেদনের সুযোগ থাকবে এবং বয়স relaxation পাবে।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এডভোকেট মোঃ মনিরুল ইসলাম মিয়া। নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীদের পক্ষে ছিলেন ও রাস্ট্রপক্ষে ছিলেন
আইনজীবী এডভোকেট মোঃ মনিরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ১৪/০৭/২০১৬ খ্রি. তারিখে ভোলা জেলা জজ আদালত একটি নিযোগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। উক্ত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে শাঁটলিপিকার ০১ জন, অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর ০৭ জন, জারিকারক ০১ জন, অফিস সহায়ক ০২ জন সহ সর্বমোট ১৪ জনের জন্য উক্ত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

কিন্তু উক্ত নিয়োগ প্রক্রিয়া বিভিন্ন কারনে ২০২১ সাল পর্যন্ত স্থগিত ছিল। পরবর্তিতে, ২০২১ ইং সালে পিটিশনার জিয়াউল হক সহ অন্যান্য আবেদনকারীদের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহনের আহবান করিয়া প্রবেশ পত্র ইস্যু করে।
পরিবর্তে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

কিন্তু মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ না করে বিগত ৪/৪/২০২১ তারিখে অফিস আদেশ নং যথাক্রমে ৬০, ৬১, ৬২ ও ৬৩ এর মাধ্যমে ‘নিয়োগ লংক্রান্ত বাছাই কমিটির’ সুপারিশকৃত প্যানেল হইতে শূন্য পদের বিপরীতে সর্বমোট (১+৭+৪+২)=১৪ জনকে এবং উক্ত একই তারিখে পৃথক তিনটি অফিস আদেশ নং যথাক্রমে ৬৪, ৬৫ ও ৬৬ এর মাধ্যমে নিয়োগ সংক্রান্ত বাছাই কমিটির সুপারিশকৃত প্যানেল হইতে শূন্য পদের বিপরীতে সর্বমোট (৯-+১+৮)=১৮ জনকে নিয়োগ প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য যে, বিগত ১৪/০৭/২০১৬ খ্রিঃ তারিখে অতিরিক্ত জেলা জজ ও দায়রা জজ এর কার্যালয় স্মারক নং ৩৫৯ এর মাধ্যমে ১৪টি পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল।
পরবর্তীতে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থী জিয়াউল হক নিয়োগপ্রাপ্ত ৩২ জনের নিয়োগ চ্যালেঞ্জ করে মহামান্য হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন। প্রাথমিক শুনানি শেষে রুল নিশি জারি করেন একই সাথে নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে ১৫ দিনের মধ্যে উক্ত আদালতে প্রতিবেদন প্রদানের নির্দেশনা প্রদান করেন। আদালতের নির্দেশনা অনুসারে ভোলা জেলা জজ মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে রিপোর্ট প্রদান করেন যে,
“স্মারক নং ৬৪, ৬৫ ও ৬৬ স্মারকে যে নিয়োগপত্রের কথা উল্লেখ করেছেন, তা ভিত্তিহীন। উক্ত স্মারকসমূহে কোন প্রার্থীকে নিয়োগ প্রদান করা হয়নি। দরখাস্তকারী ৩২ জন প্রার্থীকে নিয়োগের যে বিষয় উল্লেখ করেছেন তা ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রনোদিত। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হননি এমন প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদানের অভিযোগও সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। উক্ত নিয়োগ কার্যক্রমে ১৪ টি পদের বিপরীতে ১৪ জনকে নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। জেলা জজ আদালতের ৬৪ নং স্মারক কর্মচারীদের বদলী সংক্রান্ত, ৬৫ নং স্মারক নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীদের পদায়ন সংক্রান্ত এবং ৬৬ নং স্মারক প্রশাসনিক কর্মকর্তার ছুটি সংক্রান্ত। উক্ত স্মারক সমূহের পত্রের কপি মাননীয় আদালতে দাখিল করা হলো।

নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন হবার পর গত ০৬/০৪/২০২১ খ্রি. তারিখে ফেসবুকে জনৈক সুজন কর্মকার নিম্নমান সহকারী পদে আরো ০৯ জনসহ অন্যান্য পদে মোট ১৮ জনকে নিয়োগপত্র প্রদান করা হয়েছে মর্মে প্রকাশ করে যার কোন ভিত্তি নেই। ফেসবুকে উক্ত বিষয় প্রকাশের পর উক্ত বিষয় নিয়ে আদালত গত ০৭/০৪/২০২১ খ্রি. তারিখে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

বিজ্ঞপ্তিটি নিম্নরূপ “এতদ্বারা সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, জেলা ও দায়রা জজ আদালত ভোলায় গত ০২/০৪/২০২১ খ্রি. তারিখও ০৩/০৪/২০২১ খ্রি. তারিখ কর্মচারী নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত নিয়োগ পরীক্ষায় নিয়োগ সংক্রান্ত বাছাই কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে উপযুক্ত ১৪ জন প্রার্থীদের ফলাফল ইতোমধ্যে প্রকাশ করা”
আদালতে উক্ত নিয়োগ সংক্রান্ত রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় বিগত ১৯/০৭/২০২১ খ্রি. তারিখে করোনাভাইরাস জনিত প্রাদুর্ভাবের কারণে নতুন নিয়োগ কার্যক্রম জনস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ভোলা এর গত ০২/০৪/২০২১ খ্রিঃ, ০৩/০৪/২০২১ ও ০৪/০৪/২০২১ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত নিয়োগ কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় অফিস সহায়কের শূণ্য পদে “জেলা জজ ও অধস্তন আদালতসমূহ এবং বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতসমূহ (কর্মকর্তা ও কর্মচারী) নিয়োগ বিধিমালা “১৯৮৯ অনুযায়ী গঠিত “নিয়োগ সংক্রান্ত বাছাই কমিটির” সুপারিশ মোতাবেক মেধা তালিকা অনুযায়ী উল্লেখ পূর্বক ১২ জনকে পূনরায় নিয়োগ প্রদান করে।

উক্ত নিয়োগ চ্যালেঞ্জ কে একটি সম্পূরক stay আবেদন করেন। উক্ত আবেদন শুনানি শেষ উক্ত ১২ জনের নিয়োগ স্থগিত করে দেয়।
উক্ত আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আপিল ফাইল করে। শুনানি শেষে হাইকোর্ট বিভাগ রুল নিষ্পত্তি করার নির্দেশনা প্রদান করেন।
এই বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ (Absolute) ঘোষনা করে আজ এ রায় দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায়: বাংলাদেশ হোস্টিং
error: Content is protected !!